21 August, 2019

নাম :ভিশন ও মিশন

গবেষণাগারের প্রধান প্রধান উদ্দেশ্যেসমুহ

(১)        বাংলাদেশের সকল ঔষধি ও সুগন্ধি উদ্ভিদের জরিপ, তাদের সংগ্রহ, সংরক্ষণ এবং উন্নত চাষাবাদ পদ্ধতি নিরূপন।

(২)       ঔষধি ও সুগন্ধি উদ্ভিদের কার্যকরী উপাদান পৃথকীকরণ, সনাক্তকরণ এবং এদের এন্টিমাক্রোবিয়াল গুণাবলী পরীক্ষাকরণ।

(৩)       অ্যারোমাথেরাপী ও অ্যারোমা মেডিসিন প্রোডাক্টস উদ্ভাবন।

(৪)       ফ্লেভার, ফ্র্যাগ্রেন্স, পারফিউম ইত্যাদি প্রোডাক্টস উদ্ভাবন।

(৫)       হার্বাল মেডিসিন ও কসমেটিকস্ প্রোডাক্ট উদ্ভাবন।

(৬)       সুগন্ধি তৈল আহরণ এবং উপাদানসমুহ পৃথকীকরণ।

(৭)        এ্যানিমেল মডেল এর উপর ভেষজ উদ্ভিদের ঔষধি গুনাগুন পরীক্ষা এবং সেখান থেকে তথ্য উপাত্ত সংগ্রহের মাধ্যমে ড্রাগ  প্রস্তুতকরণ।

(৮)       সামুদ্রিক উৎস থেকে জৈব রাসায়নিক উপাদান সংগ্রহ।

(৯)       বিভিন্ন ফল ও সবজি থেকে উন্নতমানের সংরক্ষিত খাদ্য তৈরীর পদ্ধতি উদ্ভাবন

(১০)     বার্ড ফ্লু ভাইরাস সনাক্তকরণের প্রযুক্তি উন্নয়ন।

(১১)      ফলমূল, শাক-সবজিতে ব্যবহৃত কয়েকটি উল্লেখযোগ্য কীটনাশক যেমনঃ মেলাথিয়ন, ফিপ্রোনিল, ক্লোরোপাইরিফস ইত্যাদি সনাক্তকরণের প্রযুক্তি উদ্ভাবন।

(১২)     এন্টিবায়োটিক যেমনঃ ক্লোরামফেনিকল ও টেট্রাসাইক্লিন সনাক্তকরণের কৌশল উদ্ভাবন।

(১৩)     বিদেশ হতে আমদানীকৃত খাদ্যদ্রব্য ও পশু খাদ্যে শূকরের ডি এন এ পরীক্ষার প্রযুক্তি উদ্ভাবন।

(১৪)     খাদ্যশস্যের বীজ, খাদ্যদ্রব্য ও সবজিতে এবহবঃরপধষষু গড়ফরভরবফ ঙৎমধহরংস (এগঙ) সনাক্তকরণের প্রযুক্তি উদ্ভাবন।

(১৫)     মাছ, চিংড়ি ও আলুর ক্ষতিকারক ভাইরাস সনাক্তকরণের কৌশল উদ্ভাবন।

(১৬)     আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে যৌক্তিক ভাবে ঔষধ এর নকশা প্রণয়ন, নতুন ঔষধ উদ্ভাবনের গবেষণা ।

(১৭)      জ¦ালানী হিসেবে হাইড্রোজেনের ব্যবহার নিশ্চিতকরণ এবং হাইড্রোজেন ফুয়েল সেল প্রস্তুত করে বিদ্যুৎ উৎপাদনে ইহাকে উপযোগীকরণ।