জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস ২০১৮ উপলক্ষে আলোচনা সভা

 

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস ২০১৮ উপলক্ষে বিসিএসআইআর গবেষণাগার, চট্টগ্রাম এর সেমিনার রুমে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বিসিএসআইআর গবেষণাগার, চট্টগ্রাম এর কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং বিজ্ঞানীবৃন্দ।

উক্ত আলোচনা সভায় বক্তৃতা প্রদান করেন জনাব আনোয়ার হোসেন, জনাব মোঃ গোলাম রব্বানী, কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জনাব আছাদুর রহমান, সহঃ হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা জনাব মোঃ জাহাঙ্গীর খান, স্টোর অফিসার শাহজাদী খানম, রিসার্চ কেমিস্ট জনাব কাউছার আহমেদ, সায়েন্টিফিক অফিসার জনাব রিয়াদ হোসেন সবুজ, বিজ্ঞানী সংঘের সাধারণ সম্পাদক জনাব প্রভাংশু কুমার দাস, সিনিয়র সায়েন্টিফিক অফিসার জনাব মোঃ সাইদুর রহমান, জনাব সুমন দাশ, ড. মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, ড. দীপংকর চক্রবর্তী, প্রিন্সিপল সায়েন্টিফিক অফিসার জনাব নিমাই চন্দ্র নন্দী ও জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান ভূঁইয়া এবং বিসিএসআইআর গবেষণাগার, চট্টগ্রাম এর পরিচালক (অতিঃ দায়িত্ব) ড. মোহাম্মদ মোস্তফা।

অনুষ্ঠানে প্রিন্সিপল সায়েন্টিফিক অফিসার জনাব নিমাই চন্দ্র নন্দী বলেন, বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে এদেশের জনগণ মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে এদেশ স্বাধীন করেছে। ঘাতকচক্র এমন একটি দিন বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার জন্য বেছে নিল যে দিনে আমাদেরকে মুক্তিযুদ্ধে সহায়তাদানকারী দেশের স্বাধীনতা দিবস ছিল।

প্রিন্সিপল সায়েন্টিফিক অফিসার জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান ভূঁইয়া বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার মূল উদ্দেশ্য ছিল মুক্তিযুদ্ধের আদর্শকে ধবংস করা। কিন্তু শত চেষ্টা করেও তা কোনদিন সম্ভব হবেনা। যতদিন বাঙ্গালী থাকবে ততদিন বঙ্গবন্ধুর আদর্শও থাকবে।

এছাড়া অত্র গবেষণাগারের পরিচালক (অতিঃ দায়িত্ব) ড. মোহাম্মদ মোস্তফা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন বাঙালী জাতির মুক্তির কান্ডারী। বায়ান্নের ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ছেষট্টির ছয় দফার মতো বিভিন্ন আন্দোলন দিয়ে তিনি বাঙালী জাতিকে তাদের অধিকার আদায়ে মুক্তির সংগ্রামে সম্পৃক্ত করেছিলেন। পনেরই আগস্ট ঘৃণিত ঘাতকরা জাতির জনককে হত্যার মধ্যে দিয়ে জাতিকে অভিভাবকশূন্য করেছে। ২০১০ এ খুনিদের ফাঁসির রায়ে বাঙালি জাতি পাপমুক্ত হল। বর্তমান সরকার খুনিদের একাংশের ফাঁসি কার্যকর করলেও একাংশের এখনো বাকি। আমি দ্রুত সময়ে সকল ঘাতকদের ফাঁসি কামনা করি।

উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেণ বিসিএসআইআর গবেষণাগার, চট্টগ্রাম এর পরিচালক ড. মোহাম্মদ মোস্তফা। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বিসিএসআইআর বিজ্ঞানী সংঘ, চট্টগ্রাম এর সভাপতি জনাব এ. জে. এম. মোরশেদ।