ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের উপস্থিতিতে মুখরিত বিসিএসআইআর গবেষণাগার, চট্টগ্রাম

ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের বিজ্ঞান চিন্তার স্বীকৃতি এবং বিজ্ঞান চিন্তায় উৎসাহ সৃষ্টির লক্ষ্যে গত ১৬ই জানুয়ারি, মঙ্গলবার বিসিএসআইআর গবেষণাগার, চট্টগ্রাম আয়োজন করল তিন দিন ব্যাপী “বিজ্ঞান, শিল্প ও প্রযুক্তি মেলা -২০১৮”।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জনাব মোঃ আব্দুল মাবুদ, সদস্য (প্রশাসন), বিসিএসআইআর, ঢাকা এবং যুগ্ম সচিব, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, “এই বিজ্ঞান মেলার উদ্দেশ্য হল তরুণ প্রজম্মের মধ্যে বিজ্ঞান চর্চা বৃদ্ধি করা। আমাদের স্বপ্নের বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হলে আমাদের প্রয়োজন বিজ্ঞান বিষয়ে নিরন্তর শ্রম।” তিনি তাঁর বক্তব্যের শেষে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন এবং বিসিএসআইআর এর বিজ্ঞানী মহোদয়গণকে নিয়ে ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের স্টল সমূহ প্রদর্শন করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিসিএসআইআর গবেষণাগার, চট্টগ্রাম এর পরিচালক জনাব মাহমুদা খাতুন (ভারপ্রাপ্ত)। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, “কোন জাতির বিজ্ঞান ছাড়া উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই ভবিষ্যৎ বিজ্ঞানীদের সন্ধানে বিসিএসআইআর গবেষণাগার, চট্টগ্রাম ১১তম বারের মত আয়োজন করল এই ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের আসর। একদিন এই বিজ্ঞানীরাই বিশ্ব মঞ্চে বাংলাদেশের মুখ উজ্বল করবে।”

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন চীফ সায়েন্টিফিক অফিসার জনাব ওবায়দুল হক হেলালী। ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “বিজ্ঞান মেলায় পুরস্কার প্রাপ্তিটাই শুধু বড় ব্যাপার নয়, তোমরা যে শ্রমটা দিয়ে এক একটি প্রজেক্ট নিয়ে এতদিন কষ্ট করেছ সেটিই বড় ব্যাপার।”

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রিন্সিপল সায়েন্টিফিক অফিসার জনাব হাবিবুর রহমান ভূঁইয়া। তিনি বলেন, “আমরা সবাই দেশকে ভালোবাসি, তাই সবাই দেশের উন্নয়ন চাই। দেশের উন্নয়নের জন্য চাই একটি বিজ্ঞান মনস্ক প্রজন্ম। সেই তাগিদেই আমাদের আয়োজন।” তিনি ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের বিভিন্ন পর্যায়ের পুরস্কারের কথা তুলে ধরে তাদের উৎসাহ দেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রিন্সপল সায়েন্টিফিক অফিসার জনাব নিমাই চন্দ্র নন্দী। ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “বিসিএসআইআর এর বিজ্ঞান মেলার বিজ্ঞপ্তি পাওয়ার পর থেকে তোমরা যে এক একটি বিষয় নিয়ে কাজ করেছ, চিন্তা করেছ সেটিই বিজ্ঞান।”

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সিনিয়র সায়েন্টিফিক অফিসার ডক্টর আবদুস সালাম। তিনি বলেন, “আমাদের এ আয়োজন তরুণ সমাজকে বিজ্ঞানমুখী করতে এবং তাদের কাজের স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য।” ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন, “বিজ্ঞানের কোন দেশ নেই, কারণ বিজ্ঞান মানবতার জন্য এবং বিজ্ঞান একটি মশাল যা বিশ্বকে আলোকিত করে।”

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন অফিসার্স এসোসিয়েশন এর সহ-সভাপতি এবং একাউন্টস অফিসার জনাব শাহজাদী খানম। তিনি বলেন, “বিজ্ঞান মেলার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা তাদের চিন্তাগুলো জনসম্মুখে আনার সুযোগ পাচ্ছে। এর ফলে তাদের আত্ববিশ্বাস বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমি এ ধরণের আয়োজন আরো আশা করি।”

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন কর্মচারী ইউনিয়ন সভাপতি মোঃ শোয়েবুল্লাহ (এলডিএ) । তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ভিশন-২১ ঘোষণা করেছেন ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্রমুক্ত দেশে পরিণত করার লক্ষ্যে। আর ভিশন-৪১ ঘোষণা করেছেন উন্নত দেশে পরিণত করার লক্ষ্যে। বিজ্ঞানের মাধ্যমেই আমরা এ লক্ষ্যে পৌছাতে পারব। উন্নত দেশগুলো বিজ্ঞানের মাধ্যমেই ধনী হচ্ছে।”

অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেন সায়েন্টিফিক অফিসার জনাব তানিয়া শারমিন। অনুষ্ঠান শেষে বিসিএসআইআর গবেষণাগার, চট্টগ্রাম এর বিজ্ঞানীগণ, অতিথিবৃন্দ, বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীবৃন্দ ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের স্টল সমূহ পরিদর্শন করেন।